ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এতিমখানায় ৩১ছাত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত।।

Spread the love

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা শহরে বল খেলা নিয়ে মদিনাতুল তাহফিজ একাডেমি ও এতিমখানায় ডুকে ৩১জন শিশুকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারী) সন্ধ্যার দিকে কলেজপাড়ায় এতিমখানায় এ ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় অভিযুক্ত দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এতিমখানার আহত ছাত্ররা হলেন, সালমান ফারসি (৯), নাদিম (১০), ওসমান (১০), সামাউন (১০), আব্দুলাহ (১৩), জাকারিয়া (৯), ইব্রাহিম ( ১৫), সাইদুল ইসলাম (১১), ফরহাদ (৯), মুজ্জামেল (১৪), জাহিদ (১৩), জুনায়েদ (১৩), ইয়ামিন (৯), ইসমাইল (১১), আমির হামজা (১২), ওমর ফারুক (১০), আসাদ উল্লাহ (১২), রিফাত (১৩), ওয়াসিম (১২), সিয়াম (১৩), ফজলে রাব্বী (১৪), সালমান (১৭), তোফাজ্জল (১৩), রেদুয়ান (১০), মোবারক (১৪), সালমান ফারসি (১৬), আকিব (৮), তানভীর (১৪), সিয়াম (১৪), আশরাফুল (১০), রাকিব (১০)।

এব্যাপারে এতিমখানার পরিচালক আহত হাফেজ ইমরান জানান, এতিমখানার পাশে খালি জায়গায় এতিম ছাত্ররা খেলাধুলা করছিল। এসময় স্থানীয় এক ছেলের উপর বল পড়ে। এনিয়ে ছাত্রদের সাথে বাকবিতণ্ডা হয়। ছাত্ররা মাগরিবের নামাজের আগে ছাত্ররা মাদরাসায় ফিরে এসে ওজু করে নামাজের প্রস্ততি নিচ্ছিলেন। এসময় দলবেধে ২০-২৫ জন নারী-পুরুষ এতিমখানায় হামলা করে ছাত্রদের পিটিয়ে আহত করে। এছাড়া ছাত্রদের খাবারসহ প্রয়োজন মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে হাসপাতালে আমরা এসেছি। শিশুদের চিকিৎসা শেষে মাদরাসায় পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। আমরা এই ঘটনায় ফয়সাল (৩৫) ও জাহিদুল ইসলাম (৩২) নামের দুইজনকে আটক করেছি।
এতিমখানায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। খুব দ্রুত আইনী ব্যবস্থা নিচ্ছি।