Khan Md Mahadi দূর্গাপাশা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রতিদ্বন্দ্বী যখন আওয়ামীলীগ! অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েনের দাবি!

Spread the love

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি: বাকেরগঞ্জ উপজেলায় দূর্গাপাশা ইউনিয়নে ২৬ ডিসেম্বর নির্বাচন। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে সহিংসতা ততটাই বাড়ছে। বরিশালের বাকেরগঞ্জ ইউপি সদস্য প্রার্থীর ওপর পুলিশের সামনে হামলার ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে কাজ না করে নিজে ইউপি সদস্য প্রার্থী হওয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে দূর্গাপাশা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ইউপি সদস্য প্রার্থীর ওপর। ঘটনাটি ঘটেছে বাকেরগঞ্জ উপজেলার দূর্গাপাশা ইউনিয়নের শেনের বাজারে। শুক্রবার বিকেল ৪.৩০ মিনিটে হামলার ঘটনায় আহত ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রার্থী জিএম মাসুদ বলেন, শুক্রবার বিকেলে নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা অর্তকিতভাবে হামলা চালিয়ে তাকে সহ কমপক্ষে পাঁচজনকে পিটিয়ে আহত করেছে। এছাড়াও একের পর এক অভিযোগ উঠেছে নৌকার সমর্থকদের বিরুদ্ধে। পুলিশের উপস্থিতিতেই বেপরোয়া হয়ে সহিংসতায় জরাচ্ছে নৌকার সমার্থকরা। নৌকা মার্কা নিয়ে হানিফ তালুকদার মাঠে নামলেও অধিকাংশ আওয়ামীলীগের নেতারা রয়েছেন তার বিরুদ্ধে। পুলিশের উপস্থিতিতেই এমন হামলায় আতংকিত এলাকাবাসি। এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই মনে করেন যেকোনো সময়ে খুনোখুনির মত ঘটনায় জড়িয়ে পড়তে পারে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে। আপরদিকে সতন্ত্র প্রার্থী হয়ে আওয়ামীলীগের প্রতিদন্ধিতা করছেন বর্তমান চেয়ারম্যান এস এম সিরাজুল ইসলাম বাশার ও সাবেক চেয়ারম্যান সালাম খান। সতন্ত্র প্রার্থীদের অভিযোগ রয়েছে নৌকার সমার্থকদের বিরুদ্ধে। সতন্ত্র প্রার্থীদের কর্মির উপরে হামলা সহ প্রচার প্রচারনায় বাধা দেয়ার। স্থানীয় বাসিন্দারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, পুলিশের সামনে এ হামলার ঘটনায় আগামী ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা তা নিয়ে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। এরপূর্বে গত ১৬ ডিসেম্বর থানা পুলিশ নৌকার প্রার্থী হানিফ তালুকদারের কাশিনাথ বাজারের নির্বাচনী কার্যালয়ের পেছন থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজমান। তাই সর্বস্তরের মানুষের একটাই দাবি ২৬ ডিসেম্বর সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েনের দাবি জানান তারা। হামলার পরপরে ঘটনাস্থান পরিদর্শন করেন বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলাউদ্দিন মিলন, সার্কেল এসপি সুতিপ্ত সরকার। তাহারা জানান হামলাকারি যেই হোক না কেন তাদের আইনের আওয়াতায় আনা হবে। এবং দূর্গাপাশা একটি অবাধ ও সুষ্ট নির্বাচন দেয়া হবে।

 

পথিকটিভি/চৈতী