মনোহরগঞ্জে ১১টি ইউপি নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড় ঝাঁপ শুরু

মশিউর রহমান সেলিম, কুমিল্লা: কুমিল্লা দক্ষিনাঞ্চলের বানিজ্যিক নগরী খ্যাত মনোহরগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউপির নির্বাচনের দিনক্ষন শনিবার নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষনা করলে সর্বত্র বেজে উঠেছে নির্বাচনী ঢামাঢোল। শুরু হয়েছে দলীয় প্রতিকে অনেকেরই প্রার্থীতা নিয়ে গুঞ্জন এবং সম্ভাব্য প্রার্থীদের নানামুখী দৌড়ঝাঁপ। তবে রাজনৈতিক বিরোধী পক্ষ সরকারের এ পদক্ষেপ পর্যবেক্ষন করছেন। এখনো তারা কৌশলী ভূমিকায় হাই কমান্ডের উপর সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়।
স্থানীয় একাধিক সুত্র জানায়, এ উপজেলার ১১টি ইউপির আসন্ন এ নির্বাচন আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক প্রস্তুতি হিসাবে কেউ কেউ মনে করলেও মূলতঃ তা হবে শাসকদল ও প্রশাসনের নিরপেক্ষ ভূমিকার জনপ্রিয়তার পরীক্ষা। এ নির্বাচনে বিরোধী দল অংশ না নিলে শাসকদল নিজেরাই নিজেদের পক্ষে-বিপক্ষে লড়বেন বলে গুঞ্জন উঠেছে। তবে শাসক দলের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান-মেম্বার প্রার্থীরা কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ হলেও দলীয় নেতৃবৃন্ধের সিদ্ধান্তের বাহিরে তারা যাবেন না।
রাজনৈতিক বিরোধী পক্ষ এলাকার নির্বাচনী সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে চুল ছিড়া হিসাব-নিকাশ সহ নানাহ সমিকরন নিয়ে ভাবছে। এ ছাড়া সকল দলীয় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান-মেম্বার প্রার্থীদের মধ্যে ক্যাডার রাজনীতি, অপরাধ, দূর্নীতির সাথে জড়িত ব্যাক্তিদের বাদ দিয়ে ক্লিন ইমেজ ও তৃনমূলের আস্তাভাজন প্রার্থীদের দিয়ে এ নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা প্রনয়নের কাজ শুরু করেছেন সকল দলীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দ।
সুত্র গুলো আরো জানায়, স্থানীয় প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপ ও রাজনৈতিক দলগুলোর গনতান্ত্রিক সিদ্ধান্তের কারনে স্বতন্ত্র প্রাথীরা এ নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ থাকায় সব কয়টি ইউপিতে চেয়ারম্যান-মেম্বার পদে ক্লিন ইমেজ সম্ভাব্য প্রার্থীদের গুরুত্ব অনেকটা বেড়ে গেছে । ১১টি ইউপি নির্বাচনের শাসক দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে বাইশগাঁও ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন বিএসসি, তোফায়েল আহম্মদ, আনোয়ারুল আজিম ও মাসুদ করিম ওয়াসিম। সরসপুর ইউপি চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম সরওয়ার, আবুল বাশার, ওহায়িদ মুরাদ মুকুল, মাসুদুর রহমান। হাসনাবাদ ইউপিতে জনবান্ধব নেতা বর্তমান সফল চেয়ারম্যান মোঃ কামাল হোসেন, মাষ্টার মোঃ সোলাইমান, মোহাম্মদ আলী ও গোলাম সরওয়ার, ঝলম দক্ষিন ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান শাহিন জিয়া, মাকসুদুর রহমান, মোঃ হেদায়েত উল্লাহ, আশিকুর রহমান হিরন ও ফারুক রায়হান। মৈশাতুয়া ইউপিতে কর্মীবান্ধব নেতা এলাকার বিত্তশালী ব্যবসায়ী মোঃ হারুনুর রশিদ ভূঁইয়া, মোক্তার হোসেন সুমন ও ব্যবসায়ী রবিউল হোসেন। লক্ষণপুর ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ইউপি আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহজাহান সিরাজ, আবদুল বাতেন বাকী, আলমগীর চৌধুরী আরাম, আবদুস ছাত্তার ও বর্তমান চেয়ারম্যান প্রবাসী মহিউদ্দিন চৌধুরী। খিলা ইউপিতে বর্তমান সফল চেয়ারম্যান ও গণমানুষের নেতা মোঃ আল-আমিন ভূঁইয়া, ইউপি যুবলীগ সভাপতি জুয়েল রানা, প্রবাসী অহিদুর রহমান ওমানী, সাবেক ছাত্রনেতা মোশারফ হোসেন বাবলু, সেলি কাদের চৌধুরী ও ব্যবসায়ী হিরন। উত্তর হাওলা ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুল হান্নান হিরন, ইউপি আ’লীগ সভাপতি মনিরুজ্জামান ভূঁইয়া। নাথেরপেটুয়া ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান মাষ্টার রুহুল আমিন, ইউপি আ’লীগ সভাপতি আবদুল মান্নান চৌধুরী ও শেখ মোঃ জসিম। বিপুলাসার ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে কর্মী ও জনবান্ধব নেতা সাবেক চেয়ারম্যান মোবারক হোসেন ডিলারের পুত্র ঠিকাদার ইকবাল হোসেন, ইউপি আ’লীগ নেতা মাহফুজুর রহমান মজুমদার, নুরুল আলম হিরন, মাকসুদুর রহমান পাটোয়ারী ও বর্তমান চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান দুলাল নাম শুনা যাচ্ছে।
অপরদিকে এ ১১টি ইউপি নির্বাচনে ভোট গ্রহন ৩১ জানুয়ারী ২০২২, মনোনয়ন জমা শেষ তারিখ ৩রা জানুয়ারী ২০২২, মনোনয়ন প্রত্যাহার ১৩ জানুয়ারী, মনোনয়ন বাচাই-বাছাই ৬ জানুয়ারী, আপিল ৭-৯ জানুয়ারী, আপিল নিস্পত্তি ১০-১২ জানুয়ারী, প্রতীক বরাদ্ধ ১৪ জানুয়ারী নির্ধারণ হলেও সম্ভাব্য প্রার্থীরা স্ব-স্ব নির্বাচনী এলাকায় ছুটে চলেছেন লাগামহীন ঘোড়ার মতো।
এ ব্যাপারে স্থানীয় মনোহরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের একাধিক সুত্র জানায়, এ উপজেলার ১১টি ইউপি নির্বাচন ঘিরে এলাকায় শান্তি শৃংখলা নিয়ন্ত্রন, ভোটকেন্দ্র গুলো দপায় দপায় পরিদর্শন, স্বাস্থ্য বিধি নিয়েও নানাহ উদ্দ্যোগ সহ সুন্দর নিরপেক্ষ নির্বাচন করার লক্ষে স্থানীয় প্রশাসন সর্বদা প্রস্তুত রয়েছে।