গণতন্ত্রহীনতার বিভীষিকা থেকে জাতি মুক্তি চায় : সৈয়দ মো ইবরাহিম বীরপ্রতীক

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক:  মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির ১৪তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে অদ্য ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ সকাল ১১ টায় পার্টির চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল অবঃ সৈয়দ মোঃ ইবরাহিম বীরপ্রতীক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতে ২০ দলীয় জোট নেত্রী তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় সভার সভাপতি দোয়া পরিচালনা করেন। ব্যাতিক্রমী উৎসব আমেজে অনুষ্ঠিত সভায় জেনারেল ইবরাহিম বলেন- ভোটাধিকার হরণ করে ক্ষমতায় থাকা সরকারের স্বৈরাচারী কর্মকান্ড থেকে মুক্তির তাড়নায় দেশবাসী ছটফট করছে। গণতন্ত্রহীনতার বিভীষিকা থেকে জাতি মুক্তি চায়। গুমড়ে কাদছে লাখো রাজনৈতিক কর্মীদের পরিবার। জ্বালানী তেলের মূল্যবৃদ্ধি, দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন পাগলা ঘোড়া জনজীবন কে অতিষ্ঠ করে দিচ্ছে। বিজয়ের আনন্দ আজ দুঃস্বপ্নে পরিণত হয়েছে। কোথায় সেই প্রাণচাঞ্চল্য? মানুষ এখন দু’বেলা খাবার জোগাড়ের সংগ্রামে লিপ্ত। আনন্দ হারিয়ে গেছে। যুদ্ধ জয়ের সেই স্মৃতি আজো অন্তরে দোলা দেয়। সেই বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাস। দেশবাসী আজ মুক্তির স্বাদ বঞ্চিত। আজকের দিনে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা।শহীদদের পরিবারের প্রতি গভীর শোক জানাই। হাজারো মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতার সুফল বঞ্চিত জনতার আকুতি- আমরা আমাদের ভোটাধিকার ফেরত চাই। মুক্ত বাতাসে শ্বাস নিয়ে অন্তরের কথাগুলো প্রকাশ করতে চাই।দুঃখ- বেদনা,না পাওয়ার যন্ত্রণাগুলো চীৎকার করে রাষ্ট্রকে জানাতে চাই।
আজকে কোমলমতি ছাত্রদের উপর বাস উঠিয়ে দিয়ে হত্যা করছে কিছু কুলাঙ্গার। একটা অশুভ শক্তির ছায়া আমাদেরকে গ্রাস করছে। ছাত্রদের সকল ন্যায্য দাবীর প্রতি কল্যাণ পার্টির সমর্থন থাকবে। অবিলম্বে সারাদেশে ছাত্র ছাত্রীদের জন্য বাস ভাড়া অর্ধেক করতে হবে।দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবীতে আমার নেতৃত্বে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কে অনুরোধ পত্র দেয়া হয়েছে। কিন্তু তার কোনও সদুত্তর নেই। আজকের সভা থেকে আবারো জোর দাবী করছি অতিদ্রুত, সম্ভব হলে আজকেই নির্বাহী আদেশবলে খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিয়ে দেশের বাইরে গিয়ে চিকিৎসার সুযোগ দেয়া হোক। কল্যাণ পার্টি চলমান পশ্চাদপদ রাজনীতিকে ঘৃণাভরে প্রত্যাখান করছে। আমরা দেশবাসীকে সাথে নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে চাই। কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা এখন সময়ের দাবী। সেই লক্ষ্যে দেশ বিদেশের পন্ডিত ও জ্ঞানী গুণীদের কল্যাণ পার্টিতে সংযুক্ত করা হচ্ছে। বিশ্বখ্যাত ক্রিমিনোলজিষ্ট ড. শাহেদ চৌধুরী সহ নতুন মহাসচিব ও অন্যান্য পদে তারুণ্য কে প্রাধান্য দিয়ে দল পুনর্গঠন কাজ চলমান। দুর্নীতির মূলোৎপাটন করতে হলে দুর্নীতিবাজদের ধরতে সাঁড়াশি অভিযান চালাতে হবে। দ্রুত চার্জশীট প্রদান সহ বিচার প্রক্রিয়া স্বচ্ছতার সাথে স্বল্পতম সময়ে সমাপ্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। কল্যাণ পার্টি আগামীর বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে রাজনীতির গতিপথকে জনমূখী করবে। আন্তর্জাতিক সম্পর্ককে পারষ্পরিক শ্রদ্ধাবোধের ভিত্তিতে বিনির্মাণ করবে।প্রবাসী বান্ধব নীতি ও কর্ম বাস্তবায়নে অধিকতর মনোযোগী হবে।
সভায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ ভিডিওর মাধ্যমে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। তাছাড়া পার্টির চেয়ারম্যান এর বক্তব্যের সারাংশ টি পৃথিবীর ছয়টি গুরুত্বপূর্ণ ভাষায় উপস্থাপন করা হয়। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মহাসচিব আবদুল আউয়াল মামুন। এছাড়াও সভায় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বি এন পির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, এন ডি পির চেয়ারম্যান ক্বারী মো আবু তাহের, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান ড.ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, এল ডি পির মহাসচিব শাহাদাৎ হোসেন সেলিম,মাওলানা কামাল উদ্দিন জাফরি, মেজর অবঃ মো হানিফ,
পার্টির স্থায়ী কমিটির সদস্য সৈয়দা ফোরকান ইবরাহিম,ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো হাসান নাসির,ড. শাহেদ চৌধুরী, ইকবাল হাসান মাহমুদ,কর্নেল অবঃ মিয়া মো মশিউজ্জামান,বিশ দলীয় জোটের শরীক দলবাংলাদেশ জামাত এ ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল হালিম,মেজর জেনারেল অবঃ আমসা আমিন,এড. সৈয়দ এহসানুল হক, ড. শাহরিয়ার ইফতেখার ফুয়াদ, ও জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ সভাপতি সাইদুর রহমান তামান্না,মাহমুদ খান,সৈয়দ মো নজরুল ইসলাম,এ এফ এম উবাইদুল্লাহ মামুন, যুগ্ম মহাসচিব আল আমিন ভূইয়া রিপন,সাংগঠনিক সম্পাদক মো ইব্রাহিম খান সাদাত,বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী, আবু হানিফ, চট্টগ্রাম মহানগরী সভাপতি এড. মোস্তফা নূর, সদস্যগণ বক্তব্য রাখেন। অনুভূতি ব্যক্ত করেন চেয়ারপার্সন এর কন্যা শারমীন আক্তার ইন্না, নাতি আরহাম ইসলাম চৌধুরী। যুগ্ম মহাসচিব সমন্বয় আব্দুল্লাহ আল হাসান সাকিব, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জাহিদুর রহমানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের মাঝে মাঝে সাংস্কৃতিক দলের সংগীত পরিবেশন করা হয়। নবগঠিত গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান ও নাগরিক ফোরামের নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। প্রেসবিজ্ঞপ্তি