বিএসএফ ৫৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন বিজিবি

Spread the love
জাকির হোসাইন জিকু: ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর বিএসএফ ৫৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা বিনিময় করেছে বিজিবি। এসময় মধ্যকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক অনেক শক্তিশালী বলে মন্তব্য করেছেন বিএসএফের ত্রিপুরা রাজ্যের আইজি সুশান্ত কুমার নাথ। আজ বুধবার ১ ডিসেম্বর বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া আন্তর্জাতিক ইমিগ্রেশন চেকপোস্টে (শূন্যরেখায়) জয়েন্ট রিট্রিট সিরিমনির আয়োজন করা হয়।অনুষ্ঠান শুরুর আগে বিকেল সাড়ে ৪টায় আনুষ্ঠানিকভাবে দুইদেশের পতাকা নামানো হয়। এর আগে করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন ফ্ল্যাগ ডাউন অনুষ্ঠানটি বন্ধ ছিল। ফ্ল্যাগ ডাউন শেষে ত্রিপুরা বিএসএফের আইজি সুশান্ত কুমার নাথকে ফুল, মিষ্টি ও উপহারসামগ্রী দিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানান বিজিবির কুমিল্লা সেক্টরের কমান্ডার কর্ণেল শাহরিয়ার ইকবাল। এ সময় বিএসএফের তরফ থেকেও বিজিবিকে উপহারসামগ্রী দেওয়া হয়। বিএসএফের আইজি সুশান্ত কুমার নাথ বলেন, আমাদের বাহিনীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জয়েন্ট রিট্রিট সিরিমনির জন্য বিজিবির প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। ভারত ও বাংলাদেশ যেমন ভাই ভাই, তেমনি বিজিবি-বিএসএফের বন্ধুত্ব অনেক শক্তিশালী। আশা করি,আগামীতে আমাদের সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে। বিজিবি-বিএসএফ আগামীতে সীমান্ত ব্যবস্থাপনা আরও ভালোভাবে করবে। বিজিবির কুমিল্লা সেক্টরের কমান্ডার কর্নেল আবু হাসনাত শাহরিয়ার ইকবাল বলেন, আমরা চাই উভয় দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে সবসময় সুন্দর সময় বজায় থাকুক। আমাদের মধ্যকার আন্তঃসমস্যাগুলো আমরা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করবো। সেজন্য আমরা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সবসময় বজায় রাখবো। ভবিষ্যতে আমাদের সম্পর্কের বন্ধন আরও গাঢ় হোক। বাংলাদেশের পক্ষে বিজিবি ২৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফেরদৌস কবির, ৬০ ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ নুরুল আফসার, ১০ বিজিবি ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর রেজা, ১২০ বিএসএফের কমান্ডার রতনেশ কুমার ও ত্রিপুরার গোকুলনগরের ডেপুটি কমান্ডার হার্মিত সিংহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খান ও পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান এসময় উপস্থিত ছিলেন।
Enter

Jakir Hossain