মোক্তাদির চৌধুরীর মামলা নতিভুক্ত করেনি পুলিশ,১লা জুন থেকে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষনা ছাত্রলীগের।

Spread the love

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের বিষয়ে নিজের দেয়া অভিযোগ প্রায় চার সপ্তাহেও মামলা হিসেবে নথিভুক্ত না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছে যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী (এমপি)। বৃহস্পতিবার (২৭ মে) নিজের ফেসবুক আইডি থেকে মোকতাদির চৌধুরী ইংরেজিতে দেয়া স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানায়- পুলিশ বিভাগের হতাশার পরে আমি সাইবার ট্রাইব্যুনালে আমার আইসিটি মামলাটি নথিভুক্ত করতে যাচ্ছি। প্রায় ২০ দিন আগে নথি জমা দিলেও তারা প্রমাণ পায়নি, যদিও হাজার হাজার লোক প্রত্যক্ষ করেছে। যা মজার এবং হাস্যকর। আমি এই ফলাফলটি আমার আগের পোস্টে ইংগিত দিয়েছিলাম। আরো দেখতে দিন কি ঘটে। আসুন দেখুন বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করে কি না।’ এদিকে ১ জুনের মধ্যে সংসদ সদস্যের দেয়া অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করতে আল্টিমেটাম দিয়েছে জেলা ছাত্রলীগ। সংগঠনটির সভাপতি মো. রবিউল হোসেন রুবেল ও সাধারন সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভন ফেসবুক স্ট্যাটাসে এ আল্টিমেটাম দেন। স্ট্যাটাসে তারা উল্লেখ করেন, ৩০ মে পর্যন্ত লকডাউন। ১ জুন মামলাটি নথিভুক্ত না হলে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার দাবিতে রেলওয়ে স্টেশনে মানববন্ধ অনুষ্ঠিত হবে। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত ২ জনু থেকে লাগাতার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনের অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। উল্লেখ্য যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় টানা তিনদিনের তাণ্ডবের ঘটনায় হেফাজত ইসলামের জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে গত ১ মে সদর থানায় লিখিত অভিযোগ এনেছিলেন সংসদ সদস্য র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী (এমপি)এবং এটিই ছিলো শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে প্রথম কোনো লিখিত অভিযোগ। তবে এমপি’র দেয়া অভিযোগ চার তিন সপ্তাহের বেশি সময়েও সদর থানায় মামলা হিসেবে নথিভুক্ত হয়নি। পুলিশের কাছ থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ি মামলা কখন নথিভুক্ত হবে সেটা নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। কেননা, পুলিশ চাইছে সিআইডি’র মতামতের ওপর ভিত্তি করে মামলাটি নিতে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সিআইডি’র কোনো মতামত এসে পৌঁছায়নি।