আখাউড়ায় ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ‘ছাগল মেলা’ ও খামারিদের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত।

Spread the love
মোঃ মোশারফ হোসেন কবিবঃ  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় উপজেলা প্রাণিসম্পদ  দপ্তরের আয়োজনে ব্ল্যাক-বেঙ্গল-জাতের-ছাগল উন্নয়ন ও-সম্প্রসারণ–প্রকল্পের আওতায় উপজেলা পর্যায়ে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল মেলায় অংশগ্রহণকারী খামারিদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সকালে উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত ছাগল মেলায় উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন ও পৌরসভা থেকে আগত ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল পালনকারী খামারিদেরকে তাদের নিজস্ব খামারের ছাগলসমুহ প্রদর্শন করতে দেখা গেছে।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই খামারি ও কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত একটি রেলি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় অংশগ্রহণকারী কর্মকর্তারা মেলার স্টলগুলো ঘুরে দেখেন এবং বিচার-বিশ্লেষণ করে খামারিদের মধ্য থেকে প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান নির্ধারণ  করেন। এতে প্রথম স্থান অর্জন করে ধরখার ইউনিয়নের খামারি মোঃ জহির মিয়া, আর দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে পৌরসভার মসজিদ পাড়ার খামারি মোঃ তনয় মিয়া।
পরে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মোঃ কামাল বাশারের সভাপতিত্বে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এসময় অংশগ্রহণকারী অতিথিরা আমাদের দেশীয় ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল পালনে করণীয় এবং এর মাংস ও দুধের পুষ্টিমান নিয়ে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য প্রদান করেন।
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা কামাল বাশার জানান, ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল পালনে সংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ  ও মাংস উৎপাদনের দিক দিয়ে রয়েছে পঞ্চম স্থানে । দেশীয় প্রজাতির এই ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল পালনে খামারিদের আরো বেশি উৎসাহিত করতে প্রতিবছর এই ধরনের মেলার আয়োজন করা হয়ে থাকে। করুণা পরিস্থিতি বিবেচনা করে এই বছর সীমিত আকারে ও স্বল্প পরিসরে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শাহানা বেগম, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা জ্যোতিকণা দাস, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মুসলেউদ্দিন, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ইখতেখার রসুল সিদ্দিক, উপজেলা প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোছাঃ সানজিদা আক্তার সহ আরো অনেকে।
পরে প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান অর্জন কারি খামারিদের হাতে ১৪ ইঞ্চি রঙ্গিন টেলিভিশন এবং অন্যান্য অংশগ্রহণকারী খামারিদের হাতে সান্তনা পুরস্কার তুলে দেন উপস্থিত অতিথিরা।