পোলাও মাংসের সুঘ্রাণে প্রানবন্ত হয়ে উঠে ঈদের আমেজ

Spread the love

রাবেয়া জাহানঃ  সারা বিশ্বের সকল  মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরকে ঘিরে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের মধ্যে চলে কতো আয়োজন আর প্রস্ততি। নতুন কাপড় কেনার ধূম পড়ে এক মাস আগে থেকেই। ঈদের আগের দিন চাদঁ রাতে শুরু হয় মেয়েদের মেহেদী পড়ার আয়োজন। ছোট বড় সকল মেয়েরাই বিভিন্ন নকশায় হাতে মেহেদী পড়ে। মেহেদী এই রং ঈদের উৎসবকে যেনো অনেকখানি রাঙ্গিয়ে দেয়। তারপর ঈদের দিন সকাল থেকেই শুরু হয় রকমারী রান্নার আয়োজন।  সেমাই , চটপটি , নুডুলস , আর বিভিন্ন মিস্টান্ন দিয়ে  মিস্টি মুখ করে  ছেলেরা চলে যায় ঈদের নামাজ আদায় করতে। ঈদের আনন্দে সবচেয়ে বেশি মুখরিত এবং উৎসুক থাকে শিশুরা। সকাল থেকেই শুরু হয় তাদের ঘুরাঘুরি এবং সালামী আদায়ের অভিযান। বাড়ীতে মা চাচীরা ব্যস্ত থাকে রান্নার আয়োজনে। দুপুরে পোলাও কোর্মা, বিরিয়ানির সুঘ্রাণে ঈদের আমেজ অনেক বেশি প্রাণবন্ত হয়ে উঠে। তারপর বিকেল থেকে রাত অবদি বিভিন্ন আত্মীয় স্বজন এবং বন্ধু বান্ধবীর বাড়িতে বেড়ানো হয়। মূলত এই ঈদের উৎসবকে কেন্দ্র করে আত্মীয়তা এবং ভ্রাতৃত্বের বন্ধন আরো অনেক বেশি দৃঢ় এবং মজবুত হয়। সকল প্রকার ভেদাভেদ আর মনোমালিন্য ভুলে  এই ঈদের উৎসবে মানুষ একে অপরের সাথে কোলাকুলি করে পৃথিবীর বুকে মুসলিম জাতির মর্যাদাকে অনেক বেশি উজ্জিবীত করে।