আখাউড়ায় পরকীয়ার ছোবলে যুবক খুন: প্রেমিকাসহ আটক ৩

Spread the love

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি।। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় পরকীয়া প্রেমের জেরে ছুরিকাঘাতে এক যুবককে খুন করার অভিযোগ উঠেছে। পরিবারের দাবি, পরকীয়া প্রেমিকার সঙ্গে যোগাযোগ রাখা কারনে শুভ(২২) নামের এক যুবক ছুরিকাঘাত করে রাজু মিয়াকে (২০) হত্যা করেছে।

গত রোববার( ৭ মার্চ) রাত সাড়ে ৯টার দিকে পৌর এলাকার দেবগ্রামের টানা ব্রিজের দক্ষিন পাশে রাজু রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় কয়েকজন তার বাবাকে সাথে নিয়ে তাকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন। রাজুর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় রাতে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে আশুগঞ্জ নামক স্থানে রাজুর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ কথিত প্রেমিকাসহ অভিযুক্ত শুভর বাবা-মাকে আটক করে আখাউড়া থানায় নিয়ে গেছে। রাজু মিয়া দেবগ্রামের দুলাল মোল্লার বাড়ির ভাড়াটিয়া। তাদের গ্রামের বাড়ি লক্ষীপুরের কমলগঞ্জ উপজেলায়। শুভর বাড়ি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে পুলিশ। তারা দেবগ্রামের শেখ রেজাউল করিমের বাসায় ভাড়া থাকতো। এদিকে আজ সোমবার সকালে কসবা সার্কেলের সহকারী এসপি মো. নাহিদ হাসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। রাজুর বাবা আলমগীর মিয়া জানান, প্রায় ২০ বছর ধরে তিনি আখাউড়ায় থাকেন। বিয়ে করেন উপজেলার নয়াদির গ্রামে। বড় ছেলে রাজু ডিস লাইনের কর্মচারি হিসেবে কাজ করতো। রোববার রাত সাড়ে নয়টার সময় দেবগ্রাম টানা ব্রিজের সামনে তাকে ডেকে নিয়ে নিয়ে ছুরিকাঘাত করে শুভ। এদিকে রাজুর মা আনোয়েরা বেগম অভিযোগ করে বলেন, তিন-চার মাস আগে বিবাহিত মাঈনুদ্দিন মিয়ার ছেলে শুভকে এক মেয়ের সঙ্গে দেখে ফেলেন রাজু। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে বিরোধ হয়। এরই জেরে রাজুকে হত্যা করার জন্য তার পেটে ছুরিকাঘাত করে শুভ। ঘটনাস্থলে থাকা আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রসুল আহমেদ নিজামী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ওই মেয়েটির সঙ্গে রাজুও যোগাযোগ রাখতো বলে শুভ’র সঙ্গে বিরোধ হয় বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। আটককৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।