অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদ স্যারের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিক উপলক্ষে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার হিরন্ময় তারকা, কবি, গীতিকার, নাট্যকার, বীরমুক্তিযোদ্ধা, অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদ স্যারের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিক উপলক্ষে কবি ও কবিতা বিষয়ক সংগঠন কবির কলমের আয়োজনে এক স্মরণ সভা গতকাল সন্ধ্যায় “চেতনায় স্বদেশ গণগ্রন্থাগার” কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

কবির কলমের উপদেষ্টা, রম্য লেখক পরিমল ভৌমিক এর সভাপতিত্বে স্মরণসভায় প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন “চেতনায় স্বদেশ গণগ্রন্থাগার” এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি, বিশিষ্ট কবি ও কথাসাহিত্যক আমির হোসেন। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আশুগঞ্জ ফিরোজ মিয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের সিনিয়র প্রভাষক, কবি ও লেখক এম.এ. হানিফ, উলচাপাড়া মালেক ছাহেব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কবি ও লেখক মোঃ সেলিম হোসেন, সাবেরা সোবহান সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক, কবি ও লেখক মোঃ আব্দুর রহিম, হবিগঞ্জ বৃন্দাবন সরকারি কলেজ এর প্রভাষক, কবি, গীতিকার ও লেখক মোঃ মোসলেম উদ্দিন সাগর।

কবির কলমের সহ-সভাপতি কবি মনিরুল ইসলাম শ্রাবণ এর উপস্থাপনায় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কবি হুমায়ূন কবির, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন যুগ্ম সম্পাদক কবি শরিফ সরকার। সভায় হারুন স্যারের জীবনী থেকে পাঠ করেন জেলা ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি কবি ফাহিম মুনতাসির। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কবি আসাদ ইসলাম অন্তর, নাইম ইসলাম প্রমুখ।

সভায় বক্তাগণ অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদ স্যারের জীবন ও কর্মী নিয়ে আলোচনা করেন। তারা বলেন অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদ স্যার ছিলেন এক বিরল প্রতিভাধর মানুষ। তার মত এমন গুণীজন ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে খুব কমই জন্মগ্রহণ করেছেন। শিল্প সাহিত্যের প্রায় সকল ক্ষেত্রে হারুণ স্যারের অবাধ বিচরণ ছিলো। তিনি যে আলো বিতরণ করে গেছেন সেই আলোতেই আজ অনেকে আলোকিত। বক্তাগণ নতুন প্রজম্মের কাছে হারুন স্যারের সকল সৃষ্টকর্ম তুলে ধরার জন্য হারুন স্যারের স্মৃতি সংরক্ষণের আহবান জানান।