ডেটিং শো ‘স্পিলটসভিলা’-র দেখা যাবে যেসব সুন্দরীদের

ডেটিং শো ‘স্পিলটসভিলা’-র দেখা যাবে যেসব সুন্দরীদের

বিনোদন ডেস্ক:  ভারতীয় জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যানেল এমটিভির অন্যতম দর্শকপ্রিয় রিয়েলিটি ডেটিং শো ‘স্পিলটসভিলা’-র পরবর্তী সিজন এরই মধ্য়েই শুরু হয়েছে। গত ১২ নভেম্বর এর প্রথম সিজন প্রাচারিত হয়েছে। এ শো উপস্থাপনা করছেন সানি লিওন ও অর্জুন বিজলানি। প্রত্যেকবারই শোয়ে অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে বেশ কিছু নতুন চমক থাকে। জেনে নেওয়া যাক এবছর কোন কোন সুন্দরী থাকছে অংশগ্রহণকারীদের তালিকায়-

 

সানির ‘স্পিলটসভিলা’শোর এই তালিকায় সবার প্রথমেই যার নাম উঠে আসছে, তিনি হলেন বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া সেনসেশন উর্ফি জাভেদ। প্রায় প্রত্যেক দিনই বিভিন্ন ধরনের অদ্ভুত পোশাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ধরা দেন তিনি। তার ফ্যাশন সেন্সের জন্য বহুবার ট্রোলেরও শিকার হতে হয়েছে তাকে। তবে বরাবরই সেগুলোকে উড়িয়ে দিয়ে ফের নতুন রূপে হাজির হয়েছেন উর্ফি। শোয়ে ঢুকে এরই মধ্যে বাকিদের বেশ নাস্তানাবুদ করেছেন তিনি।

 

 

 

এমটিভির আরও এক জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ‘রোডিস’ থেকে উঠে এসেছেন ২৭ বছর বয়সী সৌন্দস। ‘রোডিস’র এরপর এবার তিনি একজন স্মার্ট, আত্মবিশ্বাসী ছেলের খোঁজে এই শোতে এসেছেন।

 

পেমা লিলানী অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সবচেয়ে সুন্দরী বলে মনে করছেন সকলে। শোয়ে ঢুকেই তিনি তার সেন্স অফ হিউমার দিয়ে রীতিমতো মন জয় করে নিয়েছেন ‘স্পিলটসভিলা’-এর সকলের। তিনি এখন অপেক্ষায় রয়েছেন একজন আত্মবিশ্বাসী এবং হ্যান্ডসাম পার্টনারের।

 

 

 

কলকাতার বাসিন্দা আকাশলীনা চন্দ্র। মডেলের পাশাপাশি একজন সফল ব্যবসায়ী আকাশলীনা। ‘আকাশলীনা কসমেটিকস’ নামে একটি কোম্পানির মালিক তিনি। এছাড়াও ফ্যাশন, লাইফস্টাইল কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে যথেষ্ট জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়াজুড়ে।

 

২০ বছর বয়সী সাক্ষী দ্বিবেদী একজন মডেল এবং তার পাশাপাশি একজন অভিনেত্রী। এর আগে অনেক মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছেন তিনি। ইন্সটাগ্রামে তার ফলোয়ারের সংখ্যা প্রায় ১০ লাখের কাছাকাছি। শোয়ে ঢোকার পরপরই সংঘাতে জড়িয়ে পড়েন সাক্ষী।

 

 

 

২০ বছর বয়সী কাশিশ রতনানী, পেশায় একজন মডেল। অনেক সৌর্ন্দয প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছেন তিনি। এর আগে এমটিভির এমনই একটি শো ‘সুপার মডেল অব দ্য ইয়ার’-এর সিজন টু -তে প্রতিযোগীর আসনে ছিলেন তিনি।

 

শোয়ের সবচেয়ে কমবয়সী প্রতিযোগী হলেন অভিয়া দরনাল। ১৯ বছর বয়সী অভিয়ালের ইন্সটাগ্রাম ফলোয়ারের সংখ্যা প্রায় ৯ লাখেরও বেশি। সোশ্য়াল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সয়ার রূপেই পরিচিত এই সুন্দরী।

 

 

 

বাবা আর্মি অফিসার হওয়ার দরুণ ছোট থেকেই ভীষণ শৃঙ্খলাপরায়ণ জীবনযাপনের মধ্যে দিয়ে বড় হন তিনি। মুম্বাইয়ের এনআইএফটি থেকে স্নাতক ডিগ্রি নিয়ে মডেলিংকেই নিজের পেশা হিসেবে বেছে নেন আরাধনা। তার কথায়, এই শোতে একজন ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন, ভালো ছেলের খোঁজেই তিনি এসেছেন।

 

সাক্ষী শ্রিবাস, পেশায় একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। গুগল থেকে শুরু করে লিঙ্কডিনের মতো বড় কোম্পানির সঙ্গে কাজ করেছেন সাক্ষী। এর পাশাপাশি তিনি একজন নৃত্যশিল্পী।

 

 

 

২২ বছর বয়সী শ্রিয়া প্রসাদ একজন মডেল এবং তার পাশাপাশি একজন সোশ্যাল ইনফ্লুয়েন্সার। এছাড়াও তিনি একজন মেকআপ আর্টিস্টও বটে। খুব সহজ সরলভাবেই থাকতে পছন্দ করেন শ্রিয়া। তার এই স্বভাবই এই কয়েকদিনের মধ্যেই তাকে ‘স্পিলটসভিলা’-এর সকলের প্রিয় করে তুলেছে।

 

পেশায় ফ্যাশন মডেল ২৪ বছর বয়সী সৌম্যা ভান্ডারী। পরিবারসহ দিল্লিতে বসবাস করতেন সৌম্যা। সেখানেই পড়াশোনা শেষ করে আর্কিটেক্ট হিসেবেই নিজের ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। বর্তমানে মুম্বাইয়ের বাসিন্দা সৌম্যা।