ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার এর ট্রাক-বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১১ জন নিহত হয়েছে

Spread the love

রিয়াজ ইনসান, ঝিনাইদাহঃ

এডমিট কার্ড গুলো হাতে নিয়ে আর কখনো তারা যাবেনা পরীক্ষার হলে। নিভে গেল সবগুলো জীবন প্রদীপ। ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার এর ট্রাক-বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১১ জন নিহত হয়েছে। নিহত শিক্ষার্থীদের সবাই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে যশোর এম.এম. কলেজ ও যশোর সিটি কলেজে অধ্যয়নরত ছিলেন।  দূর্ঘটনায় যে ১০ জন মারা গেছে তাদের মধ্যে ছয়জন ছিলো ছাত্র। মাস্টার্স শেষ বর্ষের পরিক্ষার্থী ছিল ৫ জন।

জীবনের শেষ ধাপের পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফিরছিলেন, স্বপ্ন ছিলো নিজের, ছিলো মা বাবার, সেই সাথে আত্মীয় স্বজন পাড়া প্রতিবেশীও স্বপ্ন দেখছিলেন হয়তো এরাও একদিন বড় অফিসার হয়ে পরিবার বা এলাকার সুনাম বাড়াবে। তাদের সাথে যারা শেষ বারের মত পরীক্ষা দিছে তারাও হয়তো ভাবেনি এটাই এদের শেষ দেখা। স্বপ্ন সব শেষ! মা বাবার কোলে ছেলে সন্তান ফিরে আসলো, আদরের বোনের কাছে ফিরে আসলো ভাই। প্রতিবেশিদের কাছেও ফিরে আসলো তাদের প্রিয়জন। বন্ধু বান্ধব ফিরে পেলো তাদের প্রিয় বন্ধুকে। তবে হ্যা, সেটা পেলো লাশ। এদের পরীক্ষার রেজাল্ট আসবে, গ্রাজুয়েট শেষ হবে। কিন্ত ভোগ করা আর হলো না।  শোক সন্ত্রস্ত পরিবারকে শান্তনা দেয়ার ভাষা নেই।

পথিকটিভি/ এ আর